অনলাইনে ইনকাম করার উপায় ২০২৩, how to earn money online

বর্তমানে প্রায় সবাই ইন্টারনেট ব্যবহার করে, অনলাইনে ইনকাম করতে চায় না এমন মানুষ খুব কমই পাওয়া যাবে। অনলাইনে সঠিক ভাবে ইনকাম করার রাস্তা খুজে পান না অনেকেই। অনলাইনে ইনকামের হাজার হাজার রাস্তা রয়েছে। কিন্তু সঠিক ভাবে কিভাবে উপযোগী ওয়েতে সহজেই একটা প্যাসিভ ইনকাম করার রাস্তা অনেকেই খুজে পান না। আর খুজে পেলেও সেটাকে সঠিকভাবে কাজে লাগাতে পারেন না আত্ববিশ্বাস এর অভাবে।

আজকে আমি আপনাদের সাথে শেয়ার করবো এমন ১০ টি সেরা উপায় যেই কাজ গুলো করে আপনি অনলাইন থেকে ইনকাম করতে পারবেন, সবাই শুধু বলে যে, সহজেই টাকা ইনকাম করতে পারবেন, কথাটা প্রথমত ভূল, কারন সহজে কখনই টাকা ইনকাম হয় না, তার জন্য অবশ্যই কঠোর পরিশ্রম করতে হয়। কিন্তু এই পরিশ্রম করতে করতে একসময় আপনার কাছে সহজ মনে হবে আর তখনই আপনি সহজে টাকা ইনকাম করতে পারবেন। মূূলত এই জন্যই বলা হয় যে, সহজেই হাজার হাজার টাকা ইনকাম করুন।

ফ্রিল্যান্সিং করে ইনকাম করার উপায় ২০২৩

ফ্রিল্যান্সিং সম্পর্কে জানেন না এমন মানুষ হয়তো খুজে পাওয়া যাবে না কিন্তু ফ্রিল্যান্সিং টা আসলে কি তা সম্পর্কে জানেন না এমন মানুষ সহজেই খুজে পেয়ে যাবেন। 

ফ্রিল্যান্সিং হচ্ছে ঘরে বসে বা আপনার যেখানে খুশি সেখানে বসে ডিজিটাল ডিভাইস কম্পিউটার বা মোবাইল এর মাধ্যমে অন্য কাউকে সার্ভিস দেওয়া সেটা হতে পারে আমাদের দেশে থাকা কোনো ব্যাক্তি বা প্রতিষ্ঠানকে অথবা বিদেশে থাকা কোনো ব্যাক্তি বা প্রতিষ্ঠানকে।

সোজা কথা হচ্ছে আপনি ঘরে বসে অন্য কারো কাজ করে দিবেন বিনিময়ে সে আপনাকে টাকা দিবে। 

সব কাজ কিন্তু ফ্রিল্যান্সার হিসেবে করা যায় না। যেমন আপনি ঘরে বসে অন্যের মাঠে ফসল চাষ করতে পারবেন না, যদিও ভবিষ্যতে অনেক প্রযুক্তি আসতেছে যেখানে আপনি ঘরে বসেই অন্যের ফসলও চাষ করে দিতে পারবেন, সেটা পরের কথা

এখন কথা হচ্ছে আমি কাজ কোথায় পাবো? সোজা একটা কথা বলি সেটা হলো আপনি ফেইসবুক বা টুইটার ইন্সাগ্রাম বা যে কোনো সোস্যাল মিডিয়া ব্যবহার করেন যেখানে অসংখ্য মানুষ থাকে তাদের কারো সাথে আপনার পরিচয় হলে আপনার যদি কোনো যোগ্যতা থাকে তাহলে তার কাছে তুলে ধরলেন এবং সে আপনাকে কাজ দিলো কিন্তু অনলাইন জগতে অনেক মানুষ কাজ করিয়ে টাকা দেয় না এমন অনেক প্রতারনার স্বীকার হয়তো হয়েছেন বা শুনেছেন তাই প্রয়োজন বিশ্বস্ত মাধ্যম যাকে ব্যবহার করে প্রতারনা এরিয়ে খুব সহজে কাজ ও টাকা লেনদেন করা যাবে।

See also  How to Make Money on Upwork for Beginners Online: The Ultimate Guide

এমন প্লাটফর্ম আর সেগুলোর মধ্যেই জনপ্রিয় কিছু মাধ্যম হলো ফাইভার, আপওয়ার্ক, পিপুলপারআওয়ার, ফ্রিল্যান্সার.কম, ইত্যাদি এছাড়াও ইতিমধ্যে আমাদের দেশিও কিছু ফ্রিল্যান্সিং সাইট রয়েছে যেগুলোর মাধ্যমে দেশি ক্লায়েন্টদের  সাথে কাজ করতে পারবেন,  যেমন- কাজকি, ডিল্যান্সার ইত্যাদি। আপনার গুগল থেকে একটু যাচাই বাছাই করে খুজে নিবেন।

অনলাইনে ইনকাম করার উপায় ২০২৩, how to earn money online 2023
অনলাইনে ইনকাম করার উপায় ২০২৩

ইউটিউব থেকে আয় করার উপায়

ইউটিউব চিনেন না এমন মানুষ নাই বললেই চলে। ইউটিউব সম্পর্কে তেমন বলার কিছু নাই। তবে আপনি যদি ইউটিউবে সফল হতে চান তাহলে আমি বলবো সম্পুর্ণ নিজের তৈরি করা কন্টেন্ট আপলোড করে যেতে থাকেন এবং অবশ্যই নিয়ম ফলো করে। আর বর্তমান ২০২৩ সাল, প্রতিযোগিতার যুগ, তাই আপনাকে টিকে থাকতে হলে অবশ্যই লেগে থাকতে হবে আর প্রচুর ভালো ভালো কোয়ালিটিফুল, এবং ইন্টারেস্টিং কনটেন্ট বানাতে হবে। আর ইউটিউব সম্পর্কে জানতে সবচেয়ে ভালো রাস্তা হলো ইউটিউব এ সার্চ দিলেই আপনি সব পেয়ে যাবেন, 

দিন যাচ্ছে আর ইউটিউবের নিয়ম নিতি আপডেট হচ্ছে তাই সবসময় নিয়ম নিতি মেনে ভিডিও বানিয়ে যেতে থাকবেন। আপনি যদি কিছু দিন ভিডিও বানিয়ে এর পরে ভাল্লাগে না, মন চায় না এগুলো বলে কাজ ছেড়ে দিলে আপনি কখনই সফল হবেন না। তাই নিয়মিত ভিডিও বানাতে হবে আর লেগে থাকতে হবে।

ই কমার্স ব্যবসা করে আয় ২০২৩

বিগত বছরগুলোতে ই-কমার্স এর যেমন চাহিদা ছিল বর্তমানে এর চাহিদা অনেক অনেক গুনে বেড়ে যাচ্ছে। আর বর্তমানে মানুষ জেলা ভিত্তিক বা থানা ভিত্তিক ই-কমার্স ওয়েবসাইট/আ্যাপ তৈরি করে ব্যবসা শুরু করে দিয়েছে। 

ই=কমার্স হচ্ছে অনলাইন স্টোর, নরমালি একটা মার্কেটে, শার্ট, প্যান্ট, পাঞ্জাবি, শাড়ি, জুতা, সহ সব ধরনের পন্য থাকে তেমনই একটা ই-কমার্স স্টোরে এমন সব ধরনের পন্য থাকে, আমরা তো দারাজ কে সবাই চিনি, দারাজে চকলেট থেকে শুরু করে জামা-কাপর, ইলেক্ট্রনিক্স পন্য, দৈনিক বাজার, গাড়ি, মেশিনারিজ সহ সব কিছুই পাওয়া যায়। ঠিক তেমন ই আপনিও একটা ই-কমার্স স্টোর খুলে নিতে পারেন, তেমন কিছু লাগবে না, একটা ওয়েবসাইট ও অ্যাপ বানিয়ে নিবেন, সেটাতে প্রচার করবেন, আর আপনার মাথায় প্রশ্ন আসতে পারে আমার তো এত বাজেট নাই আমি কিভাবে শুরু করবো, তাহলে আমি বলি আপনার কোনো কিছুই কিনতে হাবে না। 

See also  প্রতিদিন ৪-৫ হাজার টাকা ইনকাম করার ব্যবসা আইডিয়া top Business Idea in Bangladesh

আপনি যেই পন্যগুলো বিক্রি করতে চান সেগুলোর ছবি তুলে বর্ণনা লিখে ওয়েবাসাইটে পাবলিশ করে রাখবেন, প্রচুর পন্য আপলোড দিয়ে রাখবেন আর আপনার আশে পাশের বাজার এর সাথে চুক্তি করে রাখবেন, যখন আপনার ওয়েবসাইট থেকে অর্ডার আসবে তখন ওই বাজার থেকে পন্যটি কিনে পন্য ডেলিভারি দিবেন, কারন আপনার বাজেট খুব কম, আর এই কম বাজেটে আপনি লক্ষ লক্ষ টাকার পন্য একাসথে কিনে ঘরে ফেলে রাখবেন না। বর্তমানে আশা করি বুঝতে পেরেছেন। 

ওয়েব ডেভেলপমেন্ট করে আয় ২০২৩

প্রতিদিন ইন্টারনেট ব্যবহার কারির সংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে, তাই প্রতিনিয়ত বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান বা ব্যাক্তির ওয়েবসাইট প্রয়োজন হচ্ছে। ওয়েবসাইট তৈরি করার জন্য প্রয়োজন ওয়েব ডেভেলপার এর। এছাড়া অনেক কোম্পানি তাদের ওয়েবসাইটকে ম্যানেজমেন্ট করার জন্য লোক নিয়োগ করে সেই কাজও করতে পারেন। তাই আপনি যদি ওয়েব ডেভেলপমেন্ট শিখেন তাহলে সহজেই ওয়েবসাইট বানিয়ে দিয়ে বা ওয়েবসাইট ম্যানেজমেন্ট করে ইনকাম করতে পারেন। 

এখন এই লেখাগুলো পড়ার পর আপনার মনে হচ্ছে এহ, ওয়েবসাইট ডেভেলপমেন্ট কি  এত সহজ, হ্যা আসলেই সহজ, তবে আপনি যদি তা সহজ ভাবে নিতে পারেন, আমি আবার বলতেছি কোনো কাজই সহজ নয়, তাহলে মানুষ যে বলে সেটা কি, সেটা হচ্ছে তুলনামূলক সহজ তাই বলা হয় যে, সহজ।

আপনি যদি একজন ওয়েবসাইট বানাতে পরদর্শী হন তাহলে তো আপনি শুরু করতে পারেন বা ইতিমধ্যে শুরু করে দিয়েছেন কিন্তু আপনি যদি নতুন হন তাহলে আপনি ওয়ার্ডপ্রেস দিয়ে শুরু করতে পারেন। ওয়ার্ডপ্রেস সচ্ছে সবচেয়ে সহজ একটা মাধ্যম যেটার বিভিন্ন থিম ও প্লাগইন ব্যবহার করে খুব সহজেই ওয়েবসাইট বানিয়ে ফেলতে পারবেন, তাই এখনই  ইউটিউব থেকে ভিডিও দেখে সহজেই ওয়ার্ডপ্রেস শিখে নিতে পারেন। 

অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করে আয় ২০২৩

প্রথমেই অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং এর একটা সহজ উদাহরন দেই তাহলে আপনাদের বুঝতে সুবিধা হবে। যেমন ধরুন দেশি ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান দাজার।  আপনারা তো দারাজ কে চিনেন তাই না? এখন দারাজ এর কোনো একটা প্রডাক্ট যদি আপনার মাধ্যমে বিক্রি হয় তাহলে দারাজ আপনাকে একটা কমিশন দিবে কারন পন্যটা আপনার মাধ্যমে সেল হয়েছে কথা হচ্ছে আপনার মাধ্যমে কিভাবে সেল হবে,

তাহলে এটা বুঝুন যে, দারাজ এ আপনি একটা অ্যাফিলিয়েট একাউন্ট খুললেন এবং একটা প্রডাক্ট এর লিংক তাদের মাধ্যমে বানিয়ে নিবেন তারপর ওই লিংকটা আপনার ওয়েবসাইট বা সোস্যার মিডিয়ায় বর্ণনা দিয়ে শেয়ার করলেন এখন ওই লিংকে ক্লিক করে যদি কেউ পন্যটি কিনে তাহলে আপনার মাধ্যমে পন্যটি কেনা হলো আর আপনি একটা নির্দিষ্ট পরিমান কমিশন পেয়ে গেলেন।

See also  Discover the Top Upwork Jobs for Beginners Without Experience: Start Your Freelance Journey Today

বর্তামানে দেশে বিদেশে অনেক ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান রয়েছে যাদের অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং আপনি করতে পারেন, যেমন আমাজন, আলিবাবা, আলি এক্সপ্রেস দেশি কোম্পানি, যেমন, দারাজ, বিডিশপ, ইত্যাদি।

ফটোগ্রাফি করে অনলাইনে আয়

ফটোগ্রাফি করে ইনকামের কয়েকটা মাধ্যম রয়েছে, যেমন আপনার ফটোগ্রাফি বিভিন্ন স্টক ওয়েবসাইট যেমন- ফ্রিপিক, ভেক্ট্রেজি, পিন্টারেস্ট, পিক্সাবে, পিক্সেল সাইটে সেল করে ইনকাম করতে পারেন অথবা ফটোগ্রাফি রিলেটেড ফ্রিল্যান্সিং সাইটে সার্ভিস দিয়েও ইনকাম করতে পারেন। ফটোগ্রাফি কোর্স করিয়েও আয় করতে পারবেন। এবং বিভিন্ন 

ব্লগিং করে আয়

এই যে, আমি এই আর্টিকেলটি লিখেছি, আর আপনার এটা পড়তেছেন, এখান থেকে জানতেছেন, শিখতেছেন এটাই হচ্ছে ব্লগিং, আপনার একটা ওয়েবসাইট থাকবে এবং সেই ওয়েবসাইটে আপনি লেখালেখি করবেন, তারপর আপনি এডসেন্স এর মাধ্যমে বা অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করে বা অন্য কারো কোনো প্রডাক্ট প্রমোট করে টাকা ইনকাম করতে পারেন।

সোস্যাল মিডিয়া ব্যবহার করে ইনকাম

আমার প্রতিদিন ফেইসবুক, টুইটার, ইন্সটাগ্রাম ব্যবহার করে থাকি, এবং এগুলোতে অনেক ভিডিও দেখি বা এখান থেকে কোনো কিছু পছন্দ হলে কেনা কাটা ও করি। 

আপনার যদি একটা ফেইসবুক পেজ থাকে তাহলে এটাতে আপনি কন্টেন্ট বানিয়ে ইনকাম করতে পারেন। এছাড়া আপনার ওয়েবসাইটে ভিজিটর আনতে এই সোস্যাল মিডিয়া অনেক ভূমিকা পালন করবে। এছাড়া আপনি ফেইসবুক পেজ ব্যবহার করে বিভিন্ন পন্য সেল করতে পারবেন আপনি যদি অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করেন তাহলে সোস্যাল মিডিয়া থেকে প্রচুর কাস্টমার আনতে পারবেন এছাড়া বর্তমানে ফেইসবুক আইডি থেকেও  ইনকাম করা যায়।

ডিজিটাল মার্কেটিং করে আয়

ডিজিটাল যুগে ডিজিটাল মার্কেটিং এর চাহিদা ব্যপক থেকে ব্যাপক। ডিজিটাল মার্কেটিং মূলত ডিজিটাল ওয়েতে কোনো একটা প্রডাক্ট বা পরিসেবা এর প্রচার বা মার্কেটিং করা। আপনি যদি ডিজিটাল মার্কেটিং সম্পর্কে দক্ষ হয়ে থাকেন তাহলে সহজেই ফ্রিলান্সিং মার্কেটপ্লেসে বা বিভিন্ন কোম্পানি বা প্রতিষ্ঠান এর সাথে  ডিজিটাল মার্কেটিং সেক্টরে কাজ করতে পারবেন। 

অনলাইন কোচিং করিয়ে আয়

বর্তমানে ইন্টারনেট ও প্রযুক্তির ছোয়ার মানুষ অনলাইন নির্ভর হয়ে গেছে। এখন মানুষ কোনো কিছু শিখতে চাইলে গুগল/ওয়েবসাইট বা ইউটিউবে সার্চ করে শিখে নেয়। তাই আপনার যদি এমন কোনো যোগ্যতা থাকে সেটা যেটাই হোক আপনি শিখাতে পারেন তাহলে আপনি একটা ইউটিউব চ্যানেল খুলে বা ওয়েবসাইটে পেইড কোর্স করিয়ে ভালো পরিমান একটা টাকা ইনকাম করতে পারবেন। 

ধরুন আপনি ভালো ইংরেজী/ গনিত/ বিজ্ঞান শিখাতে পারেন। এখন আপনি চাইলে ইউটিউবে ফ্রিতে শিখাতে পারেন অথবা অনলাইনে টাকার বিনিময়ে কোর্স ও করারে পারবন সেই ক্ষেত্রে জুম মিটিং বা গুগল মিট এর মাধ্যমে ক্লাস নিতে পারেন।

পরিশেষে

উপরে সেরা দশটি পদ্ধতিতে আপনি অনলাইনে ইনকাম করতে পারবেন। এছাড়াও আরো অনেক ইনকাম এর পদ্ধতি রয়েছে। যেগুলো নিয়ে পরবর্তী আর্টিকেলে আলোচনা করবো। আর্টিকেলটি ভালো লাগলে অবশ্যই বন্ধুদের সাথে শেয়ার করতে পারেন। তবে আমি আশা রাখি যে আপনি যে কোনো একটা সেরা মাধ্যম বাছাই করে ইনকাম শুরু করুন।