ভোটার আইডি কার্ড অনলাইন কপি ডাউনলোড, স্লিপ নম্বর দিয়ে ভোটার আইডি কার্ড

নতুন ভোটার নিবন্ধন করার পরে কিভাবে ভোটার স্লিপ নম্বর দিয়ে এনআইডি অনলাইন কপি বের করতে পারবেন সেটা অনেকেই জানেন না বিভিন্ন কারণে অথবা সার্ভারের সমস্যা থাকার কারণে অনেক সময় ভোটার স্লিপ এর তথ্য ভুল দেখায়। আজকে আপনাদেরকে দেখাবো কিভাবে আপনারা ভোটার স্লিপ নম্বর দিয়ে আইডি কার্ড বের করবেন। তাহলে চলুন বিস্তারিত জেনে নেই ভোটার স্লিপ নম্বর ব্যবহার করে কিভাবে এনআইডি কার্ড ডাউনলোড করবেন।

আপনি যদি ইতিপূর্বে ভোটার নিবন্ধন করে থাকেন নির্বাচন কমিশন অফিসে অথবা স্কুল-কলেজে অনেক সময় ভোটার নিবন্ধন করে থাকে অথবা বাড়িতে অনেক সময় ভোটার নিবন্ধন করে অফিসের লোকেরা এসে, যেভাবে আপনি ভোটার নিবন্ধন করেন না কেন আপনার যে মোবাইল নাম্বারটি দিয়ে থাকবেন সেই নাম্বারে আপনার একটি মেসেজ আসবে যে আপনার এন আইডি কার্ডটি রেডি হয়ে গিয়েছে অনলাইন থেকে ডাউনলোড করে নিন।

স্লিপ নম্বর দিয়ে ভোটার আইডি কার্ড

কিন্তু আপনি যদি আপনার মোবাইল নম্বরে এসএমএস না পেয়ে থাকেন তবে যদি আপনি ভোটার স্লিপ নম্বর দিয়ে এনআইডি কার্ড ডাউনলোড করার চেষ্টা করে থাকেন তবে দেখেন যে, সেখানে তথ্য ভুল দেখায়।

আপনিও যদি উপরোক্ত সেইম সমস্যাটির সম্মুখীন হয়ে থাকেন তাহলে এটার একটা সহজ সমাধান রয়েছে। এখনকার প্রায় সব মানুষের ভোটার স্লিপ নম্বর 9 সংখ্যার হয়ে থাকে। অর্থাৎ ফরম নম্বর যদি 123456789 (নয়) ডিজিটের হয় তাহলে রেজিস্ট্রেশনের সময় অবশ্যই আপনাকে NIDFN123456789 এভাবে লিখতে হবে।

ভোটার আইডি কার্ড অনলাইন কপি ডাউনলোড, স্লিপ নম্বর দিয়ে ভোটার আইডি কার্ড
ভোটার স্লিপ নম্বর দিয়ে এনআইডি কার্ড

ভোটার আইডি কার্ড অনলাইন কপি ডাউনলোড

ধাপ-১: ওয়েবসাইটে প্রবেশ করুন

ভোটার আইডি কার্ড অনলাইন কপি ডাউনলোড, স্লিপ নম্বর দিয়ে ভোটার আইডি কার্ড
রেজিষ্ট্রার করুন
See also  জাপান ভিসা আবেদন করার নিয়ম, জাপান ভিসা ক্রোয়েশিয়া, স্পেন, ব্রাজিল, জাপান ভিসা আবেদন

ভোটার স্লিপ নম্বর দিয়ে জাতীয় পরিচয় পত্র উত্তোলন করার জন্য এই লিংকে ক্লিক করুন।

তারপর রেজিস্ট্রেশন করুন বাটনে ক্লিক করুন। এখানে আপনার মেসেজ থেকে পাওয়া জাতীয়পরিচয়পত্র নম্বর অথবা স্লিপ নম্বর বসিয়ে দিন তবে স্লিপ নম্বর বসানোর পূর্বে অবশ্যই NIDFN যোগ করে বসাবেন। তারপর  আপনার জন্ম নিবন্ধন নম্বর দিন এরপর ক্যাপচার ঘরে যেই সংখ্যা/অক্ষরগুলো আছে সেগুলো সঠিকাভাবে দিয়ে ক্যাপচা পূরণ করুন
ভোটার আইডি কার্ড অনলাইন কপি ডাউনলোড, স্লিপ নম্বর দিয়ে ভোটার আইডি কার্ড
ভোটার স্লিপ নম্বর দিয়ে এনআইডি কার্ড

ধাপ-২: আপনার বর্তমান ও স্থায়ী ঠিকানা সিলেক্ট করুন

আপনার বর্তমান ও স্থায়ী ঠিকানা সিলেক্ট করুন, বিভাগ, জেলা  ও উপজেলা এভাবে সিলেক্ট করে দিন। এবং পরবর্তী ধাপ অনুসরণ করুন
ভোটার আইডি কার্ড অনলাইন কপি ডাউনলোড, স্লিপ নম্বর দিয়ে ভোটার আইডি কার্ড
ভোটার স্লিপ নম্বর দিয়ে এনআইডি কার্ড

ধাপ-৩: মোবাইল নম্বর যাচাইকরণ

এর পরবর্তী ধাপে আপনি একটি মোবাইল নম্বর দেখতে পাবেন যেটা আপনি ভোটার নিবন্ধনের সময় ব্যবহার করেছিলেন যদি এই নম্বরটি হারিয়ে যায় বা আপনার কাছে না থাকে তাহলে এখানে মোবাইল পরিবর্তন অপশনে ক্লিক করে আপনার উপস্থিত যে নাম্বারটি রয়েছে সেই নাম্বারটি প্রদান করুন 

ভোটার আইডি কার্ড অনলাইন কপি ডাউনলোড, স্লিপ নম্বর দিয়ে ভোটার আইডি কার্ড
ভোটার স্লিপ নম্বর দিয়ে এনআইডি কার্ড

তারপর ওই মোবাইল নম্বরে একটি যাচাই করুন কোড যাবে এবং ওই কোডটি বসিয়ে সাবমিট করুন। 

ভোটার আইডি কার্ড অনলাইন কপি ডাউনলোড, স্লিপ নম্বর দিয়ে ভোটার আইডি কার্ড
ভোটার স্লিপ নম্বর দিয়ে এনআইডি কার্ড

পরবর্তী ধাপে ঠিক এমন একটি কিউআর কোড স্ক্যান করতে হবে এই লিংকে ক্লিক করে এন আইডি ওয়ালেট (NID WALLET) অ্যাপটি ইন্সটল করে ফেলুন।

ভোটার আইডি কার্ড অনলাইন কপি ডাউনলোড, স্লিপ নম্বর দিয়ে ভোটার আইডি কার্ড
ভোটার স্লিপ নম্বর দিয়ে এনআইডি কার্ড

আপনি যদি আইফোন ইউজার হয়ে থাকেন সেক্ষেত্রে আপনি এনআইডি ওয়ালেট অ্যাপটি ব্যবহার করতে পারবেন না কারণ এখনো iphone এর জন্য এনআইডি ওয়ালেট অ্যাপ তৈরি করা হয়নি শীঘ্রই আইফোনের জন্য এনআইডি ওয়ালেট অ্যাপটি মার্কেটে চলে আসবে তাই আপনার আশেপাশে থাকা কারো android ফোন দিয়ে স্ক্যান এর কাজটি সম্পন্ন করে নিতে হবে।

ধাপ-৪: ফেস বা চেহারা ভেরিফিকেশন

পরবর্তীত ধাপে ফেস স্ক্যান করে আপনি আপনার প্রোফাইলে লগইন করুন । নিচের চিত্রে যেভাবে দেখিয়েছি এভাবে ধাপগুলো অনুসরণ করুন।

See also  ট্রেনের টিকেট কাটার নতুন নিয়ম e Ticket Railway bd Train Ticket bd
ভোটার আইডি কার্ড অনলাইন কপি ডাউনলোড, স্লিপ নম্বর দিয়ে ভোটার আইডি কার্ড
ভোটার আইডি কার্ড অনলাইন কপি ডাউনলোড

এভাবে চিত্রের ন্যায় ডানে বামে আপনার ফেইস ঘুরিয়ে ভেরিফিকেশন কমপ্লিট করুন। ফেস ভেরিফিকেশন এর সময় চেহারা একমদ দূরেও ধরবেন না আবার একদম কাছেও ধরবেন না। আর অবশ্যই পর্যাপ্ত আলো আছে এমন স্থানে ফেস স্ক্যান করুন।

ধাপ-৫: পাসওয়ার্ড সেট করুন

এই ধাপে আপনি চাইলে পাসওয়ার্ড সেট করতে পারেন অথবা এড়িয়ে যেতে পারেন তবে সবচেয়ে ভালো হয় পাসওয়ার্ড সেট করা কারণ পাসওয়ার্ড যদি আপনি সেট করেন তাহলে সে ক্ষেত্রে যে সুবিধা হবে সেটা হচ্ছে আপনি বারবার ফেস স্ক্যান করে আপনার একাউন্টে লগইন করতে হবে না আপনি যে ইউজার নেম এবং পাসওয়ার্ড দিবেন সেটা দিয়ে এক ক্লিকে আপনার একাউন্টে লগইন করে ফেলতে পারবেন অথবা অন্য প্রান্ত থেকে আপনার একাউন্টে যে কেউ লগইন করতে পারবে যদি সে পাসওয়ার্ড ও ইউজার নেম জানে। পাসওয়ার্ড একটু কঠিন করে দিবেন।

ভোটার আইডি কার্ড অনলাইন কপি ডাউনলোড, স্লিপ নম্বর দিয়ে ভোটার আইডি কার্ড
ভোটার আইডি কার্ড অনলাইন কপি ডাউনলোড

ধাপ-৫: জাতীয় পরিচয় পত্র ডাউনলোড করুন

এরপর আপনার প্রোফাইলে ডাউনলোড নামে একটি অপশন দেখবেন সে অপশন এ ক্লিক করবেন তাহলে আপনার আইডি কার্ড টি ডাউনলোড হয়ে যাবে

ভোটার আইডি কার্ড অনলাইন কপি ডাউনলোড, স্লিপ নম্বর দিয়ে ভোটার আইডি কার্ড
 ভোটার স্লিপ নম্বর দিয়ে এনআইডি কার্ড উত্তোলন

এভাবে আপনি খুব সহজে ভোটার স্লিপ নম্বর ব্যবহার করে সহজেই আপনার জাতীয় পরিচয় পত্র টি ডাউনলোড করে প্রিন্ট করে নিতে পারেন।

আশা করি এর পর থেকে কোনো সমস্যা হবে না। ভালো লাগলে শেয়ার করতে পারেন আপনার বন্ধুদের সাথে।

মোবাইল নম্বর দিয়ে জাতীয় পরিচয় পত্র বের করা

জাতীয় পরিচয় পত্র বের করার জন্য আমাদের বেশ  কয়েকটা অপশন রয়েছে। আমরা  এই ভোটার আইডি কার্ড বের করার জন্য বিভিন্ন পদ্ধতি অবলম্বন করি। আবার অনেকেই জানতে চায় কিভাবে মোবাইল নম্বর  ব্যবহার করে জাতীয় পরিচয় পত্র বের করা যায়? মোবাইল নম্বর দিয়ে কি আসলে ভোটার আইডি কার্ড বের করা যায় কিনা তা নিয়েই আজকের আলোচনাঃ

See also  চলমান সকল সরকারি চাকরির নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি ২০২৩ govt job circular 2023

আমরা যখন জাতীয় পরিচয় পত্রের জন্য নতুন নিবন্ধন করে থাকি তখন আমাদেরকে একটি মোবাইল নম্বর দিতে হয়। আর মোবাইল নম্বর ব্যবহার করেই কিন্তু আমাদের জাতীয় পরিচয় পত্রের/ নির্বাচন কমিশনের ওয়েবসাইটে একাউন্ট করতে হয়। এর পর স্লীপ নম্বর ও মোবাইল নম্বর ব্যবহার করে আমরা জাতীয় পরিচয়পত্র উত্তোলন করতে পারি। 

আমরা যেই নম্বর ব্যবহার করে জাতীয় পরিচয় পত্র নিবন্ধন করি বা করেছি সেই মোবাইল নম্বর দিয়ে জাতীয় পরিচয় পত্র বা ভোটার আইডি কার্ড বের করা সম্ভব নয়।

তাবে আপনি আগে বুঝুন আপনি কোনটা করতে চাচ্ছেন? মোবাইল নম্বর ব্যবহার করে ভোটার আইডি কার্ড বের করতে চাচ্ছেন নাকি আপনার জাতীয় পরিচয় পত্র কোন মোবাইল নম্বর দিয়ে নিবন্ধন করা সেটি জানতে চাচ্ছেন? যদি আপনি মোবাইল নম্বর ব্যবহার করে জাতীয় পরিচয় পত্র বের করতে চান তাহলে সেটি বর্তমানে অসম্ভব কিন্তু আপনি চাইলে নিচের দেওয় পদ্ধতি ব্যবহার করে সহজেই জাতিয় পরিচয় পত্র উত্তোলন করতে পারেন। 

তবে আপনি সেই সিম অপারেটর ব্যবহার করছেন সেটার কাস্টমার কেয়ার থেকে জানতে পারবেন যে, উক্ত সিমটি কোন জাতীয় পরিচয় পত্র দ্বারা রেজিষ্টার করা হয়েছে।

যেহেতু মোবাইল নম্বর দিয়ে ভোটার আইডির তথ্য বের করার সম্ভব হচ্ছে না তাই আপনি আপনার মোবাইল থেকে এস.এম.এস পাঠিয়ে জাতীয় পরিচয় পত্রের তথ্য বের করতে পারবেন। 

এই নিয়মে জাতিয় পরিচয় পত্রের তথ্য বের করতে হলে আপনি আপনার মোবাইলে মেসেজ অপশনে গিয়ে টাইপ করুন

SC <স্পেস> F <স্পেস> ৮সংখ্যার  স্লীপ নম্বর <স্পেস> D <স্পেস> ৪ সংখ্যার জন্ম সাল  ড্যাস (-) ২ সংখ্যার জন্ম তারিখ লিখে ১০৫ নম্বরে সেন্ড করুন।

যেমনঃ ‍SC F 32165498 D 2003-23 Send to 150 Number

২৪ থেকে ৪৮ ঘন্টার মধ্যে আপনি জাতীয় পরিচয় পত্র নম্বর ও ভোটার তথ্য পেয়ে যাবেন। এখান থেকে আপনার জাতীয় পরিচয় পত্র নম্বর ও জন্ম তারিখ ব্যবহার করে ভোটার আইডি কার্ড ডাউনলোড করতে পারবেন।

শেষ কথা

এই হচ্ছে ভোটার আইডি কার্ড এর অনলাইন কপি বা ভোটার স্লীপ নম্বর দিয়ে আইডি কার্ড ডাউনলোড এর উপায়। আশা করি সবাই বুঝতে পেরেছেন। সরকারি সেবা সবসময় আপনাদের কল্যানে নিয়োজিত।